প্রথমপাতা নির্বাচিত করোনা: প্রিয়তম মানুষের সাথে একদিন চুমুর সন্ধি হবে

করোনা: প্রিয়তম মানুষের সাথে একদিন চুমুর সন্ধি হবে

425
0

এ.আর ফারুক:  এই বদ্ধ গুমোট অবস্থা একদিন কেটে যাবে। সর্বেশষ করোনা আক্রান্ত রোগীটিও ভি সাইন দেখিয়ে পরম কৃতজ্ঞতাহ বলবে আলহামদুলিল্লাহ্‌ বা জয় শ্রিরাম কিংবা ঈশ্বরের অন্যান্য নাম। হয়তো সপ্তাহ, মাস কিংবা বছর পর। আনন্দের সোনালী সূর্য ওঠবেই। জমে থাকা হাজার হাজার আলিঙ্গনে মানুষ মেতে ওঠবে প্রিয়জনের সাথে। আবার জমজমাট হয়ে ওঠবে পাড়ার চায়ের দোকান থেকে টিএসসির চায়ের আড্ডা। প্রিয়তম মানুষের সাথে চুমুর সন্ধি হবে, হাজার হাজার স্মৃতি ফ্রেম বন্দী হবে। লোকাল বাসগুলোতে, ভাই একটু সাইডে দাঁড়ান না, এই মামা ভাড়া দেন রব ওঠবে। গুলিস্তানের হকাররা আবার বলবে, এই বিশ, এই একশো, একশো। ক্যাম্পাস, ক্লাসে কিংবা ক্যান্টিনে আবার হঠাৎ দেখায় হাই ফাইভ দেয়া হবে। দামী কমদামী শপিংমলে মানুষেত হল্লা বাড়বে। আবার নিউমার্কেট- গাউসিয়ায় চলতে গিয়ে কোনো যুবকের বোতামে চুল আটকাবে কোনো তরুণীর। অথবা ঘড়ির চেইনে আটকাবে শাড়ির আঁচল বা ওড়না। সেই থেকে আবার শুরু হবে কোনো নতুন গল্প। হয়তো কোনো কপোত কপোতী অঞ্জন দত্তের সেই গানের মতো সস্তা হোটেলের বদ্ধ কেবিনে বন্দী দুজনে…! আবার শুরু হবে যানজটের নিত্যমেলা। ঈদে ভীড় করে বাড়ি ফেরা। আবার নিয়মিত হবে প্রিয়জনের জন্য পছন্দের জিনিসটি কেনার মহড়া।

ফুলের দোকান গুলোতে লম্বা লাইন লাগবে। কেবল প্রিয়তমর জন্য তার পছন্দের ফুল কেনা হবে বলে। রেস্টুরেন্ট, হাজী, নান্নার বিরিয়ানি, বিউটি লাচ্ছি- ফালুদার দোকানে আবারও ভীড় জমে ওঠবে। রমনা, সোহরাওয়ার্দী, বলধা গার্ডেন আবার জনাকীর্ণ হবে। জোয়ারের মতো হঠাৎ পতেঙ্গা, গুলিয়াখালি, ইনানীসহ সব সমুদ্র সৈকত মানুষে ভরবে। আবারও মানুষ মুখোশ সরিয়ে মানুষ হয়ে হেসে ওঠবে।

ততোদিন অবধি, প্লিজ ততোদিন অবধি থাকুন ঘরেই। আমাদের সেই দিন খুব বেশি দূরে নয়। সোনালী সূর্যটা এই ওঠলো বলে …

লেখক, স্বেচ্ছাসেবক

Corona Update Bangladesh

আপনার অভিমত/মন্তব্য জানাতে পারেন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্যটি লিখুন
অনুগ্রহ করে এখানে আপনার নাম লিখুন