প্রথমপাতা শিল্পসাহিত্য এক বছর পর ঈশিতা, সঙ্গী নিশো

এক বছর পর ঈশিতা, সঙ্গী নিশো

1
0

নব্বই দশকের নন্দিত অভিনেত্রী রুমানা রশীদ ঈশিতা গত বছর ‘আগুনের নোনা জল’ নাটকে অভিনয় করেছিলেন। এরপর নতুন নাটকে দেখা যায়নি তাকে। এবার ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে ‘কেন’ নামের নাটকে অভিনয় করলেন এই অভিনেত্রী। এতে ঈশিতা জুটি বেঁধেছেন এ প্রজন্মের জনপ্রিয় অভিনেতা আফরান নিশোর সঙ্গে। নাটকটি পরিচালনা করেছেন মাহমুদুর রহমান হিমি। প্রেম-ভালোবাসার রোমান্টিক গল্পে অনেকদিন পর নিশোর সঙ্গে দেখা যাবে এই অভিনেত্রীকে। সম্প্রতি নাটকের কিছু বিহাইন্ড দ্য সিন ফেইসবুকে শেয়ার করেছেন ঈশিতা। তাতে নিশোকে মনোযোগ দিয়ে ক্যামেরার পেছনে তাকিয়ে আছেন। তাই ঈশিতা মজা করে ছবির ক্যাপশন দিয়েছেন- এত গবেষণা! নাটকটির প্রসঙ্গে ঈশিতা বলেন, ‘গল্প পছন্দ হলে বছরে দুয়েকটা নাটকে কাজ করার চেষ্টা করি। এই নাটকের গল্পটা আমার বেশ পছন্দ হয়েছে। রোমান্টিক একটা গল্প, যেখানে আমার বিপরীতে রয়েছে নিশো। কাজটা করে ভালো লেগেছে।’ ঈশিতা-নিশো ছাড়াও এই গল্পে রয়েছে আরেকটি জুটি  তৌসিফ মাহবুব ও মেহজাবিন। আসছে ভালোবাসা দিবসে নাটকটি গানচিলের ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার করা হবে।

এদিকে, গত মাসে প্রকাশ পেয়েছে ঈশিতার কণ্ঠে গাওয়া একটি গানের ভিডিও। এতে তার সঙ্গে কণ্ঠ মিলিয়েছেন তার ছেলে। লাকি আখন্দ ও হ্যাপী আখন্দের কালজয়ী গান ‘আবার এলো যে সন্ধ্যা’ গানটি নতুন করে গেয়েছেন তারা। প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জি সিরিজের ব্যানারে গানটি ইউটিউবে প্রকাশ পেয়েছে। দর্শক- শ্রোতারা হুমড়ি খেয়ে পড়েছেন এই গানে। ঈশিতার গায়ক ছেলের নাম যাভীর। চার বছর বয়স থেকেই সে মায়ের সঙ্গে গুনগুনিয়ে গান গাইতে শেখে। গানটি নিয়ে ঈশিতা বলেন, ছেলের খুব শখ ছিল আমার সঙ্গে একটি গান করার। তাই দুজন মিলে গানটি করলাম। এই গানটি আমাদের দুজনেরই ভীষণ প্রিয়। আনন্দের সঙ্গে কাজটি করেছি আমরা সবাই। আশা করছি গানটি সবার ভালো লাগবে।’

এর আগে গেল বছর ঈশিতার গাওয়া ‘আমার অভিমান’ শিরোনামে একটি গান প্রকাশিত হয়েছিল। শ্রোতারা ওই গানের প্রশংসা করেন। এছাড়া গত বছর রেদোয়ান রনির ‘পাতা ঝরার দিন’ নাটকে অভিনয় করে তিনি জিতে নেন মেরিল প্রথম আলো সেরা সমালোচকপ্রিয় টিভি অভিনেত্রীর খেতাব।

আর নিশো এখন তুমুল ব্যস্ত বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের নাটক ও টেলিফিল্ম নিয়ে। এ উপলক্ষে অনেকগুলো নাটক করলেও সম্প্রতি আরও দুটি ভিন্নধর্মী কাজ করেছেন তিনি। নির্মাতা আওরঙ্গজেব পরিচালিত ‘সিগনেচার’-এ নিশোকে দেখা যাবে ইলিউশনে ভোগা এক ব্যক্তির চরিত্রে। মেহজাবিন ও নিশো জুটিকে আরও দেখা যাবে ‘শিফ্ট’ শিরোনামের একটি নাটকে। আফরান নিশোর গল্প ভাবনায় এটির রচনা করেছেন ইশতিয়াক অয়ন আর নির্মাণ করেছেন সঞ্জয় সমদ্দার। এতে তারা দু’জন স্বামী-স্ত্রী। দুজনেই কাজ করেন একটি প্লাস্টিক ফ্যাক্টরিতে। একদিন হঠাৎ করে কর্মরত অবস্থায় সেই ফ্যাক্টরির বিল্ডিং ধসে পড়ে। আর সেখান থেকে শুরু হয় নতুন এক গল্প।

আপনার অভিমত/মন্তব্য জানাতে পারেন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্যটি লিখুন
অনুগ্রহ করে এখানে আপনার নাম লিখুন